শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০
logo
মেঘনায় মা ইলিশ রক্ষায় টাস্কফোর্সের অভিযান
এক জেলের দুই বছরের জেল বিক্রেতার জরিমানা ৫ হাজার টাকা
প্রকাশ : ১৪ অক্টোবর, ২০১৬ ১২:২৩:৪২
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: মেঘনা নদীর চাঁদপুর নৌ সীমানার বিভিন্ন স্থানে একাধিক অভিযান পরিচালনা করেছে মা ইলিশ রক্ষা টাস্কফোর্স কমিটি। গত দুইদিনে ১০টি মোবাইল কোর্ট ও ৯টি অভিযান পরিচালনা করে টাস্কফোর্স একজন জেলে ও একজন ইলিশ বিক্রেতাকে আটক, ১৬ কেজি মাছ জব্দ, ৩৭ হাজার মিটার কারেন্ট জাল উদ্ধার করেছে। এছাড়া ২১টি মাছ ঘাট, ১২টি বাজার ও ৫৮টি মাছের আড়ৎ পরিদর্শন এবং দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মতলব উত্তর উপজেলা টাস্কফোর্স গতকাল ১৩ অক্টোবর হযরত আলী (৪০) নামে এক জেলেকে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকার করায় আটক করে। পরে তাকে দুই বছরের কারাদ- দিয়ে জেলা কারাগারে পাঠিয়ে দেয়া হয়। দ-প্রাপ্ত জেলের বাড়ি মতলব উত্তর ভেদুরিয়া বাজার। তার বাবার নাম সুরুজ মিয়া গাজী।
একইদিন হাজীগঞ্জ উপজেলা টাস্কফোর্স শাহআলম (৫৫) পিতা : ফজলুর রহমান নামে একজন ইলিশ বিক্রেতাকে আটক করে ৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে। ওই সময় তার কাছ থেকে ১২ কেজি মাছ জব্দ করা হয়েছে। এসব তথ্য জানিয়েছেন চাঁদপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা সফিকুর রহমান।
এদিকে গত ১২ অক্টোবর জেলেরা ইলিশ ধরা থেকে বিরত আছে কি না তা দেখার জন্যে নদীর বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন করেন পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার। পুরাণবাজার রণা গোয়াল পশ্চিম জাফরাবাদ টাওয়ার এলাকার গতকাল গিয়ে বিকেলে গিয়ে দেখা যায় নদী অনেকটাই নীরব। কোনো জেলে নৌকা চোখে পড়েনি। তবে গভীর রাতে দোকানঘর গুচ্ছ গ্রাম সংলগ্ন সাখুয়া খাল, রণা গোয়াল বাঁধের দক্ষিণ এলাকায় কিছু জেলে কারেন্ট জাল নিয়ে নদীতে নামছে। ভোরে সূর্যের আলো আসতেই নদীর পাড়ে চুরি চামারি করে ইলিশ বিক্রি হয় বলে এলাকা সূত্রে জানা যায়। এদিকে একটি সূত্রে জানা গেছে, প্রশাসনের গতিবিধি লক্ষ্য রাখছে মেঘনা নদীর চাঁদপুর শহরের আশপাশ ও দক্ষিণ এবং পশ্চিম পাড়ের কারেন্ট জালের জেলেরা। তারা সুযোগ খুঁজছে নদীতে নামবার। পুলিশের কারো কারো সাথে যোগযোগের চেষ্টাও করছে। এখন দেখার অপেক্ষা ইলিশ না ধরার নিষেধাজ্ঞা অভিযানের সামনের দিনগুলো কেমন যায়।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর