শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯
logo
চাঁদপুরে এবার ১শ ৯৩টি মন্ডপে শারদীয় দূর্গা পূজা হচ্ছে
প্রকাশ : ০৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০৮:৩৫:২২
প্রিন্টঅ-অ+
শরীফ চৌধুরী

চাঁদপুর: ৬ষ্ঠী পূজার মধ্যদিয়ে ৭ অক্টোবর শুরু হচ্ছে পাঁচ দিনব্যাপি সনাতন হিন্দু ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দূর্গা পূজা । এ বছর দেবী দূর্গা আসছে গজে চড়ে গমনও করবেন গজে চড়ে। এই বিশ্বাসকে ধারণ করে প্রতি বছরের ন্যায় এবছরও চাঁদপুর জেলায় ১শ’ ৯৩টি মন্ডপে শারদীয় দূর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে। চাঁদপুর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের আহবায়ক অধ্যাপক রনজিত কুমার ভৌমিক জানান, এ বছর জেলায় ১শ’ ৯৩টি মন্ডপে শারদীয় দূর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে।  যা গত বছরের চাইতে অনেক বেশী। জেলার ৮টি উপজেলার মধ্যে চাঁদপুর সদর উপজেলায় ২৮টি, মতলব দক্ষিণ উপজেলায় ৩৪টি, মতলব উত্তর উপজেলায় ২৮টি, কচুয়া উপজেলায় ৩৯টি, হাজীগঞ্জ উপজেলায় ২৫, ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ১৮টি, শাহারাস্তি উপজেলায় ১৫টি, হাইমচর উপজেলায় ৬টি মন্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে জেলার অধিকাংশ পূজামন্ডপের প্রতীমা গড়ার মূল কাজ শেষ হয়ে এসেছে। এখন শেষ মূহুর্তে প্রতিমা রং করার করার কাজ চলছে।
  এদিকে বিগত বছরের তুলনায় এ বছর দূর্গাৎসবে দ্বিগুণ ব্যয় বৃদ্ধি হওয়ায় কিছুটা হিমশিম খেতে হচ্ছে বলে জানিয়েছে আয়োজকরা। এরপরও আয়োজনের কোন কমতি নেই আয়োজকদের। রকমারি আলোক সজ্জার বর্ণালী বাহারে সাজানো হবে মন্ডপ ও তার আশপাশগুলো। হাতে আর মাত্র বাকি দু’দিন। তাই রাত-দিন ধরে চলছে সাজ-সজ্জার কাজ। সব মিলিয়ে উৎসবের রং সাজছে দেশের সংস্কৃতি ও সম্প্রীতির জেলা চাঁদপুরে। প্রতিমা তৈরীর ভাস্কর শিল্পীরা জানান, গত বছরের তুলনায় এ বছর রং, মাটিসহ সব জিনিষের দাম ও শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে রাত-দিন পরিশ্রম করেও লাভের মুখ দেখছেনা তারা।
    এ ব্যাপারে চাঁদপুর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব রাধা গোবিন্দ ঘোষ বলেন, দূর্গা পূজা পরিচালনার লক্ষ্যে প্রতিটি মন্ডপে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা রক্ষায় প্রতিমা তৈরী থেকে শুরু করে বিসর্জন পর্যন্ত পূজা কমিটির নিজস্ব  স্বেচ্ছাসেবককর্মী রাখা হয়েছে। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে উৎসব পালনের লক্ষ্যে প্রশাসনিক ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে বলে জানান তিনি।
 

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর