শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯
logo
আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবসের র‌্যালির নেতৃত্বে জেলা প্রশাসক
সমাজ থেকে শিক্ষার কুসংস্কার দূর করে বাঙালি জাতি শিক্ষিত হয়েছে
প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১২:০৭:১৪
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: চাঁদপুরে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস পালন করা হয়েছে। গতকাল ৮ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে সাক্ষরতা দিবসের বর্ণাঢ্য র‌্যালির উদ্বোধন করে জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডল। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। বিদ্যালয় মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ বছর সাক্ষরতা দিবসের প্রতিপাদ্য ছিলো ‘অতীতকে জানবো-ভবিষ্যৎ গড়বো’।
    হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আঃ রফিকের সভাপতিত্বে ও সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ কবির উদ্দিনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ আবদুল হাই। তিনি বলেন, ১৯৬৬ সালে ইউনেস্কো প্রথম আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস চালু করে। আজ আমরা দিবসটির ৫০ বছর উদ্যাপন করছি। অতীতকে জানতে হবে-ভবিষ্যৎ গড়তে হবে। ১৯৬৬ সালে শিক্ষার হার ছিলো অনেক কম। তাদের বলা হতো চোখ থাকতে অন্ধ। পূর্বে আমরা বাল্য শিক্ষা পড়েছি। সেই বাল্য শিক্ষায় অনেক পড়ালেখা ছিলো। যে বাল্য শিক্ষার জ্ঞান অর্জন করতে পারেনি সে নিরক্ষর। নেপোলিয়ান বলেছিলো, তোমরা আমাকে একজন শিক্ষিত মা দাও, আমি তোমাদের শিক্ষিত জাতি দেবো। সমাজ থেকে শিক্ষার কুসংস্কার দূর করে এখন বাঙালি জাতি শিক্ষিত হয়েছে। মাটিতে লেখালেখি করলে নাকি ঋণী হতে হয়। সেই কুসংস্কার থেকে আমরা মুক্ত হয়েছি। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, লেখাপড়া করে তোমাদের অনেক বড় হতে হবে। পরিবার ও সমাজের জন্যে তোমাদের অনেক কিছু করার মন-মানসিকতা রয়েছে। আর তার জন্যে প্রয়োজন ভালোভাবে লেখাপড়া করা। চাঁদপুরের মানুষ শিক্ষিত। তাই সরকারের যে দপ্তরেই যাওয়া হয় সে দপ্তরে চাঁদপুরের মানুষ রয়েছে। বাংলাদেশের মধ্যে চাঁদপুর জেলায় শিক্ষিতের হার ৬৮%। তোমাদের কাছে অনুরোধ, বাড়িতে ও আশপাশে যে সমস্ত ব্যক্তি নিরক্ষর রয়েছে তাদেরকে তোমরা সাক্ষর শিখাবে। তিনি আরো বলেন, যে বাড়িতে মা শিক্ষিত নয়, তাকে শিক্ষিত করতে হবে। সাক্ষর জ্ঞান শিখাতে হবে। মায়েরা যদি শিক্ষিত হয় তাহলে তারা সন্তানদেরকে শিক্ষা দিতে পারবে।
    এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আক্তার হোসেন, প্রেসক্লাব সভাপতি বিএম হান্নান, হাসান আলী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল বাসার প্রমুখ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রুশদীসহ বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীগণ। আলোচনা সভাশেষে নিরক্ষর ২০ জনকে সাক্ষর শিক্ষার কারণে পুরস্কার করা হয়।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর