রোববার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯
logo
ঈদ উদযাপনে ছুটছে মানুষ নাড়ির টানে
প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১২:০৫:২০
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপনের লক্ষ্যে এবং পরিবারের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে নাড়ির টানে ছুটছে আবাল-বৃদ্ধা-বনিতাসহ সব বয়সের মানুষ। জীবনের মায়া না করে অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে বাস-ট্রেনের ছাদে চড়েও দক্ষিণাঞ্চলীয় যাত্রীরা চাঁদপুরে আসতে দেখা যায়। বৃষ্টিতে ভিজে লঞ্চ, ট্রেন ও বাসের ছাদে চড়া যাত্রীদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়। গতকাল ৮ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার চাঁদপুর শহরের মাদ্রাসা রোড বিকল্প লঞ্চঘাটে গিয়ে দেখা যায় ঈদ উদ্যাপনের জন্যে নাড়ির টানে ঘরমুখো মানুষের ঢল নেমেছে। দক্ষিণাঞ্চলীয় অনেক লঞ্চযাত্রী লঞ্চের অপেক্ষায় থেকে নিদারুণ কষ্ট সহ্য করে ছোট ছোট সন্তানাদি নিয়ে লঞ্চের অপেক্ষায় বসে রয়েছে। আবার অনেক যাত্রী তাদের সাথে রাখা মালামাল শিয়রে রেখে ঘুমিয়ে রয়েছে। সন্ধ্যার পর ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা দক্ষিণাঞ্চলীয় লঞ্চগুলো চাঁদপুর ঘাটে ভিড়লে তাতেই তাদের চড়তে হবে। রাত ১০টার পর দক্ষিণাঞ্চলীয় লঞ্চগুলো চাঁদপুর ঘাটে এসে থামলে যাত্রীরা তাতে চড়ে নিজ গন্তব্যের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। চট্টগ্রাম থেকে চাঁদপুরে রেলপথে ২টি বিশেষ ট্রেন সার্ভিস দেয়া হয়েছে। এ ২টি অতিরিক্ত ট্রেনসহ মোট ৪টি ট্রেন চট্টগ্রাম থেকে চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। এগুলোতে উপচেপড়া ভীড়। দক্ষিণাঞ্চলীয় অনেক গৃহবধূ ও তরুণী চট্টগ্রামের বিভিন্ন গার্মেন্টেসে কর্মরত। ঈদুল আযহার ছুটি পাওয়ায় ট্রেনগুলোতে অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে ছাদে চড়ে চাঁদপুর বড়স্টেশনে আসতে দেখা যায়। দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে ট্রেনের ছাদে চড়ে জীবনের মায়া ত্যাগ করে চাঁদপুর হয়ে দক্ষিণাঞ্চলীয় বিভিন্ন স্থানের নিজ গন্তব্যে রওনা করে।
    রেলওয়ে স্টেশন, নৌ-টার্মিনাল ও বাসস্ট্যান্ড ঘুরে দেখা যায়, ঘরমুখো মানুষের প্রচ- ভিড়। চাঁদপুর লঞ্চ টার্মিনাল ঘাটে কোস্টগার্ড, নৌ-পুলিশ, স্কাউট সদস্যরা গত কয়েক দিন ধরে যাত্রীদের নিরাপত্তায় দিবারাত্রি কাজ করে যাচ্ছে। নৌ-পুলিশ যে সমস্ত লঞ্চে অতিরিক্ত যাত্রী নেয়া হচ্ছে সেসব লঞ্চ থেকে যাত্রী নামিয়ে দিয়ে অন্য লঞ্চে তুলে দিচ্ছে যাতে করে ঘরমুখো মানুষ নিরাপদে বাড়ি যেতে পারে। বিষয়টি সার্বক্ষণিক তদারকি করছেন নৌ-পুলিশ সুপার সুব্রত হাওলাদার। কোস্টগার্ড সদস্যরাও যাত্রী নিরাপত্তায় লঞ্চ টার্মিনাল ঘাট এলাকা থেকে ছোট-বড় সকল ধরনের নৌ-যান চলাচল বন্ধ রেখেছে। এর কারণ হলো, অনেক সময় দেখা যায়, লঞ্চ ছেড়ে দিলে যাত্রীরা নৌকাযোগে লঞ্চে গিয়ে উঠে। এতে করে যে কোনো ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা থাকায় এ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। চাঁদপুর বিআইডব্লিউটএ যাত্রীদের নিরাপদে বাড়ি পৌঁছে দিতে চাঁদপুর লঞ্চঘাটে দক্ষিণাঞ্চলগামী অতিরিক্ত লঞ্চ রাখার ব্যবস্থা করেছে।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর