বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৯
logo
স্কুল ছাত্রী সাথী আত্মহত্যার প্ররোচনায় আটক শিক্ষক আলাউদ্দিন জেল হাজতে
প্রকাশ : ০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১২:০৪:২০
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: চাঁদপুর সদর উপজেলার বাগাদী গণি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী সাথী আক্তারকে আত্মহত্যার প্ররোচনার দায়ে আটক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। গত ২৯ আগস্ট সোমবার বাগাদী গণি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী সাথী আক্তার গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়। আত্মহত্যার কারণ ছিলো জেএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি হিসেবে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মডেল টেস্ট পরীক্ষা শুরু করে। ওই পরীক্ষা বাবদ ২৮০ টাকা ফিস ধার্য করে। হতদরিদ্র সাথীর বাবা দেলোয়ার হোসেন মেয়েকে ২৬০ টাকা দিয়ে বিদ্যালয়ে পাঠায়। সেই টাকা বিদ্যালয়ে জমা দিলে অফিস সহকারী কাম শিক্ষিকা ফাতেমা বেগম সাথী আক্তারকে গলা ধাক্কা দিয়ে বিদ্যালয় থেকে বের করে দেয়। সাথী আক্তার বাড়িতে গিয়ে কান্নাকাটি করে বিষয়টি পরিবারের সদস্যকে বলে। সাথীর মা চায়না বেগম পাশের বাড়িতে ২০ টাকা আনতে গেলে সে এই অপমান সহ্য করতে না পেরে ঘরের ভেতর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।
    পরদিন জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর ম-ল ও পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশকে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্যে নির্দেশ দেন। মৃত সাথীর পিতা দেলোয়ার হোসেন ঘটনার দিন রাতে ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক আলাউদ্দিন মজুমদার, অফিস সহকারী কাম শিক্ষিকা ফাতেমা বেগম, সহকারী শিক্ষক জাহাঙ্গীর হোসেন ও জাকির হোসেনকে আসামী করে মামলা করে। চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ মঙ্গলবার বিকেলে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আলাউদ্দিন মজুমদারকে আত্মহত্যার প্ররোচনার দায়ে আটক করে।
    গতকাল বুধবার দুপুরে আলাউদ্দিন মজুমদারকে আদালতে প্রেরণ করা হয়। শিক্ষক আলাউদ্দিন মজুমদারের পক্ষে অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মোঃ কায়সার মোশারফ ইউসুবের আদালতে জামিনের আবেদন করা হয়। বিজ্ঞ বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে শিক্ষক আলাউদ্দিন মজুমদারকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয়। অপর আসামী ফাতেমা বেগম, জাহাঙ্গীর হোসেন ও জাকির হোসেন পলাতক রয়েছে।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর