বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯
logo
ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে প্রচন্ড ঢেউয়ের আঘাত
শহর রক্ষাবাঁধের বড় স্টেশন মোলহেডের ৩শ মিটার এলাকায় ব্লক ধস
প্রকাশ : ২২ আগস্ট, ২০১৬ ১২:৩৫:০০
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে প্রচ- ঢেউয়ের আঘাতে চাঁদপুর শহর রক্ষাবাঁধের বড় স্টেশন মোলহেডের ৩শ’ মিটার এলাকায় ব্লক ধসে পড়েছে। এ কারণে পুরো মোলহেড এলাকা ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে। বড় স্টেশন এলাকার জনসাধারণের মাঝে ভাঙ্গন আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।
    বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের কারণে গত শনিবার রাত থেকে পদ্মা-মেঘনার পানি অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পায়। মেঘনার পানি চাঁদপুর শহর রক্ষাবাঁধের বড় স্টেশন মোলহেডের উপরিভাগের ২/৩ মিটারের মধ্যে চলে আসে। শনিবার মধ্যরাত থেকে চাঁদপুরের সর্বত্র টানা বর্ষণ চলতে থাকে। রোববার সন্ধ্যা পর্যন্ত তা অব্যাহত থাকে। গতকাল দিনভর টানা বৃষ্টির সাথে ঝড়ো বাতাস বইতে থাকে। ঘূর্ণিঝড়ের ঝড়ো বাতাসে পদ্মা-মেঘনা মিলনস্থলে নদী উত্তাল হয়ে উঠে। উত্তাল ঢেউ প্রচ- গতিতে শহর রক্ষাবাঁধের বড় স্টেশন মোলহেডে আঘাত হানতে থাকে। গতকাল বিকেল ৫টায় পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করে। ঘূর্ণিঝড়ে পদ্মা-মেঘনার উত্তাল ঢেউ ১৫ থেকে ২০ ফুট উচ্চতায় মোলহেডে আঘাত হানে। ঢেউয়ের পানিতে পুরো মোলহেড এলাকা হাঁটু পানিতে প্লাবিত হয়ে যায়। পানির ¯্রােত রক্তধারা পেরিয়ে পুরাতন স্টেশন এলাকায় এসে পড়ে। এ সময় স্টেশন এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। প্রচ- ঢেউয়ের আঘাতে মোলহেডের মাথা, দক্ষিণ ও উত্তর কোনের তিনটি পয়েন্টের ৩শ’ মিটার এলাকার ব্লক ধসে পড়ে। মোলহেডের মাথায় স্থাপিত বিআইডব্লিউটিএ’র একটি বিকন বাতি হেলে পড়ে। ঢেউয়ের আঘাতে দর্শনার্থীদের বসার জন্যে চাঁদপুর পৌরসভার জেন্ডার কমিটির স্থাপিত বেশ কিছু বেঞ্চ পড়ে যায়।
    সংবাদ পেয়ে পাউবোর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী নিজামুল হক ভূঁইয়া, নির্বাহী প্রকৌশলী রায়হান আহমেদ, নির্বাহী প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) আতাউর রহমানসহ পাউবোর কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে ছুটে যান। প্রচ- ঢেউয়ের কারণে ঝুঁকি নিয়ে তারা মোলহেডের মাথায় যান এবং পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেন। চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর ম-ল তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে ছুটে যান। ঊর্ধ্বতন মহলে পরিস্থিতি অবহিত করেন। উপস্থিত পাউবোর কর্মকর্তাদের জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যে নির্দেশ দেন। এর পরই চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব নাছির উদ্দিন আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটোয়ারী দুলাল ঘটনাস্থলে যান। পাউবোর কর্মকর্তাদের সাথে পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন। ব্লক ধসে পড়া নিয়ন্ত্রণে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যে বলেন। এ সময় তাদের সাথে জেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উদয়ন দেওয়ান, এএসপি সার্কেল (চাঁদপুর সদর) মোঃ নজরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। বড় স্টেশন মোলহেড এলাকা ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ায় রাত ৮টা থেকে পুলিশ প্রশাসন জনসাধারণের চলাচল বন্ধ করে দেয়।
    এ ব্যাপারে পাউবোর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী নিজামুল হক ভূঁইয়া, নির্বাহী প্রকৌশলী রায়হান আহমেদ জানান, গতকাল বিকেল ৫টায় ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে প্রচ- ঢেউয়ের আঘাতে পানি ¯্রােতের তোড়ে শহর রক্ষাবাঁধের বড় স্টেশন মোলহেডের মাথা ও দক্ষিণ-উত্তর পাশের ৩শ’ মিটার এলাকার কিছু ব্লক ধসে পড়েছে। এ কারণে মোলহেড এলাকা ঝুঁকিপূর্ণ দেখা দিয়েছে। পর্যাপ্ত বালিভর্তি জিও টেক্সটাইল ব্যাগ ও সিসি ব্লক মজুদ রয়েছে। ঢেউ ও ¯্রােত কমে আসলে জিও টেক্সটাইল ব্যাগ ও সিসি ব্লক ফেলা হবে। এজন্যে আমরা প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিয়েছি।
    এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের সময় প্রচ- ¯্রােতের কারণে পুরাণবাজারের ভূঁইয়ার ঘাট এলাকায় তিনটি দোকান নদীতে তলিয়ে গেছে। ডাকাতিয়া নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বেশ কয়েকটি দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পানি ঢুকে মালামাল নষ্ট হয়েছে।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর