শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০
logo
ডাকাত আতঙ্কে নির্ঘুম রাত গ্রামবাসীর
প্রকাশ : ০৭ আগস্ট, ২০১৬ ১২:৪৯:১৫
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: মতলব উত্তর উপজেলায় গত ক’দিন ধরে ডাকাতির ঘটনা বৃদ্ধি পাওয়ায় সাধারণ মানুষ আতঙ্কে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে। গ্রামে গ্রামে দল বেঁধে পাহারা দিচ্ছে স্থানীয় যুবকরা।
বিভিন্ন গ্রামের বাসিন্দারা জানায়, গত এক সপ্তাহে অন্তত ৭টি বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। শ্রীরায়েরচর থেকে মতলব সড়কের আশপাশের বাড়িগুলোতেই এই ডাকাতির ঘটনা বেশি ঘটছে বলে তারা দাবি করছে। গভীর রাতে ডাকাতরা মাইক্রো কিংবা পিকআপ ভ্যানে করে এসে রাস্তার পাশের বাড়িগুলোতে নারী ও শিশুদের জিম্মি করে নগদ অর্থ, স্বর্ণালঙ্কার ও মূল্যবান আসবাবপত্র ছিনিয়ে নিচ্ছে।
ভুক্তভোগীরা টাকা পয়সা বা জিনিসপত্র দিতে না চাইলে মারধর থেকে শুরু করে অস্ত্র দেখিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে বলে ক্ষতিগ্রস্তরা জানান। ফলে সাধারণ মানুষ শিশু ও নারীদের কথা চিন্তা করে মূল্যবান জিনিসপত্র ডাকাতদের হতে তুলে দেন।
এদিকে হঠাৎ করে ডাকাতি বেড়ে যাওয়ায় গ্রামের যুবকরা দল বেঁধে রাত জেগে গ্রাম পাহারা দিচ্ছে বলে স্থানীয়রা জানায়। গ্রামের মানুষ দিন শেষ হলেই আতঙ্কিত রাতের জন্য অপেক্ষা করছে।
এলাকাবাসীর অভিযোগ, সামনে কোরবানির ঈদ ও সেচ প্রকল্পের বাইরে বন্যা দেখা দেয়ায় ডাকাতি বেড়ে গেছে। তাই উপজেলার নিশ্চিন্তপুর, ঘাসিরচর, কলসভাঙ্গা, কাশিমনগর, মমরুজকান্দি, ইসলামাবাদ, পশ্চিম সুজাতপুর গ্রামের যুবকরা রাতে পালা করে দল বেঁধে পাহারা দিচ্ছে।
গত ৩০ জুলাই রাতে ইসলামাবাদ গ্রামের নোয়াব আলীর ঘরে ডাকাতি হয়েছে বলে পরিবারের লোকজন জানায়। নোয়াব আলীর মেয়ে রুমা আক্তার জানান, আনুমানিক রাত সাড়ে ১২টায় তাদের ঘরের দরজা ভেঙে ডাকাতরা তার বাবা-মাকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হত্যার ভয় দেখিয়ে ৩ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও সাড়ে ১৯ হাজার টাকা নিয়ে যায়।
একই রাতে পশ্চিম সুজাতপুর গ্রামের তোফাজ্জল হোসেন প্রধানের ঘরে ডাকাতি হয়। তোফাজ্জল হোসেন  জানান, ডাকাতরা তার ঘরে সিঁদ কেটে প্রবেশ করে ধারালো রামদা দিয়ে হত্যার ভয় দেখিয়ে ৩ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ৫ ভরি রুপা, ৩টি মোবাইল ও ২০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।
পার্শ্ববর্তী গ্রাম ঘাসিরচরের ইউসুফ আলী বলেন, ‘আমি গরিব মানুষ। দিন এনে দিন খাই। ডাকাতরা আমার ঘাড়ে ধারালো রামদা দিয়ে হত্যার ভয় দেখায়। আমি খুব ভয় পেয়েছি। আমার ঘরে ৫শ টাকা ও আমার ভাই শুক্কুর আলীর ঘর থেকে ১ হাজার টাকা ও তার স্ত্রীর গলা হতে স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে যায়।’
এ ব্যাপারে মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলমগীর হোসেন মজুমদার বলেন, ‘ডাকাতির বিষয়টি আমি জেনেছি। ডাকাতির পর আমি নিজে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অতিরিক্ত টহল ডিউটি বাড়ানো হয়েছে এবং উপজেলার টরকী গ্রামের রফিক নামে একজন ডাকাত সদস্যকে দেশীয় অস্ত্রসহ আটক করা হয়েছে। এ বিষয়টি আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দেখছি।’

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর