শনিবার, ৩০ মে ২০২০
logo
জেলা পুলিশের সন্ত্রাস বিরোধী আলোচনা সভায় জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডল
আসুন আমরা সকলে সঠিক ধর্মে বিশ্বাসী হই
প্রকাশ : ০৫ জুলাই, ২০১৬ ১৭:১৮:১৫
প্রিন্টঅ-অ+
দলমত নির্বিশেষে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কাজ করুন : পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার

চাঁদপুর: চাঁদপুর জেলা পুলিশের উদ্যোগে সন্ত্রাস বিরোধী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল ১১ টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডল।
পুলিশ সুপার শামসুন্নাহারের সভাপতিত্বে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র নাছির উদ্দিন আহম্মেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ ইউসুফ গাজী, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি মোঃ ওচমান গণি পাটওয়ারী, চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি সুভাষ চন্দ্র রায়, চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উদয়ন দেওয়ান, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী, জেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রোটাঃ কাজী শাহাদাত, চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি বিএম হান্নান, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মিজানুর রহমান কালু ভূঁইয়া, পৌর কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি শেখ মনির হোসেন বাবুল, পৌর আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি রাধা গোবিন্দ ঘোষ, কমিউনিটি পুলিশিং অঞ্চল কমিটির পক্ষে অঞ্চল-২-এর সাধারণ সম্পাদক তমাল কুমার ঘোষ, জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের আহ্বায়ক প্রফেসর রণজিত কুমার বণিক, চাঁদপুর শহর ইমাম সমিতির আহ্বায়ক মাওঃ আব্দুর রউফ, জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি অ্যাডঃ বিনয় ভূষণ মজুমদার, চাঁদপুর পৌর প্যানেল মেয়র মোঃ ছিদ্দিকুর রহমান ঢালী, জেলা মহিলা আওয়ামী যুব লীগ সভানেত্রী কাউন্সিলর ফরিদা ইলিয়াছ ও বিষ্ণুপুর ইউপি চেয়ারম্যান নাছির উদ্দিন শামীম।
সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ওয়ালী উল্লাহ। সেকেন্ড অফিসার মনির আহম্মেদের সঞ্চালনায় শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন শাহী মসজিদের খতিব মাওঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠের সম্পাদক ও প্রকাশক অ্যাডঃ ইকবাল-বিন-বাশার, যুদ্ধকালীন বিএলএফ কমান্ডার হানিফ পাটওয়ারী, চাঁদপুর চেম্বার অব কমার্সের সহ-সভাপতি আবুল কালাম পাটওয়ারী, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রুশদী, জেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুফী খায়রুল আলম খোকন, প্রচার সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন মিলন, অফিস সেক্রেটারী নজরুল ইসলাম স্বপন, পৌর কমিটির সহ-সভাপতি ও চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক রোটাঃ জামাল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শাহেদুল হক মোর্শেদ, সদর উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, জমিয়াতুল মোর্দরেছীনের জেলা সাধারণ সম্পাদক মাওঃ মোস্তাফিজুর রহমান খান, জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ রনজিত রায় চৌধুরী, সহ-সভাপতি গোপাল সাহা, সদর উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি মোঃ জিয়াউদ্দিন খন্দকার, প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত জাতীয় ইমাম সমিতির চাঁদপুরের যুগ্ম সম্পাদক মাওঃ মুহাম্মদ আবদুর রহমান গাজী, বেগম জামে মসজিদের খতিব মুফতি মোঃ মাহবুবুর রহমান, চাঁদপুর সদর উপজেলা কমপ্লেক্স জামে মসজিদের খতিব মুফতি মোঃ কেফায়েত উল্লাহ, কালেক্টরেট জামে মসজিদের খতিব মাওঃ মোঃ মোশারফ হোসাইন, চাঁদপুর হরিবোলা সমিতির সভাপতি অজয় কুমার ভৌমিক, ইসকন জগন্নাথ মন্দিরের অধ্যক্ষ বিশাল গোবিন্দ দাসাধিকারী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি তপন সরকারসহ পৌর জনপ্রতিনিধি, ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডল বলেন, আসুন আমরা সকলে সঠিক ধর্মে বিশ্বাসী হই। ধর্ম আর জঙ্গিবাদ এক কথা নয়। বিশ্বের মধ্যে বাংলাদেশের লোকেরাই খাঁটি মুসলমান। আমাদের কিছু কিছু লোককে ধর্মের নামে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। আমরা যখন অর্থনৈতিক মুক্তির জন্যে কাজ করছি। ঠিক সেই মুহূর্তে জঙ্গিবাদের নামে দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করা হচ্ছে। আমরা যদি জঙ্গিবাদ সন্ত্রাস দমন করতে না পারি, তাহলে আমরা আমাদের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পেঁৗছতে এবং সোনার বাংলা গড়তে পারবো না। যারা জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসের সাথে জড়িত তাদেরকে বুঝিয়ে শুনিয়ে তাদের মনের পরিবর্তন করতে হবে। সম্মিলিতভাবেই সঠিক ধর্মের পথে আনতে হবে। তিনি আরো বলেন, ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর এ দেশে সন্ত্রাসী কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদেরকে এ কাজে টার্গেট করা হয়েছে। ভালো ইংরেজি ও কম্পিউটার সফট্ওয়্যার সম্পর্কে যাদের ভালো জ্ঞান আছে তাদেরকে তারা ধর্মের নামে কাছে টেনেছে। পরবর্তীতে এ সকল মেধা সম্পন্ন লোকদেরকে সন্ত্রসী কার্যক্রমে ব্যবহার করা হচ্ছে। কোনো ধর্মই সন্ত্রাসকে লালন-পালন করেনি। যারা ধর্মের নামে সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করে তাদেরকে সম্মিলিতভাবে প্রতিহত করতে হবে।
সভায় সভাপতির বক্তব্যে পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার বলেন, দলমত নির্বিশেষে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কাজ করুন। আমাদের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করার জন্যে এ হত্যাকা-। এ দেশটাকে অকার্যকর রাষ্ট্র হিসেবে পরিণত করার জন্যে একটা নীল নক্শা করা হচ্ছে। আমরা যদি এখনই তা প্রতিহত করতে না পারি তাহলে তা ব্যাপক আকার ধারণ করবে। তিনি আরো বলেন, পাড়া-মহল্লা ও প্রতিটি গ্রাম-গঞ্জে মানুষকে সচেতন করতে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর