সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১
logo
জেলেদের মাঝে বিকল্প কর্মসংস্থানের উপকরণ বিতরণকালে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ
মন্ত্রী মায়া ভাই জেলেদের ভাগ্যোন্নয়নে বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নিয়েছেন
প্রকাশ : ১৬ জুন, ২০১৬ ০৮:২৬:২১
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: গতকাল বুধবার মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের মায়া বীর বিক্রম অডিটোরিয়ামে জেলেদের মাঝে বিকল্প কর্মসংস্থানের উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে। বৃহত্তর কুমিল্লা জেলায় মৎস্য উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় জাটকা সংরক্ষণ জেলেদের বিকল্প কর্মসংস্থান আয় বর্ধন ও জাল বিতরণ কার্যক্রমের আওতায় ২শ' ২০ জেলের মাঝে ৩০ জনকে ছাগল (প্রতি জনকে ২টি করে), ৯০ জনকে সেলাই মেশিন ও ১০টি গ্রুপকে বেড় জাল (প্রতি গ্রুপে ১০ জন) বিতরণ করা হয়।
এ উপলক্ষে চাঁদপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা সফিকুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা জহিরুল ইসলামের পরিচালনায় উপকরণ বিতরণ কার্যক্রমে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ।
বক্তব্য রাখেন সহকারী প্রকল্প পরিচালক শামীম উদ্দিন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবদুল কাইয়ুম মজুমদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শহীদ উল্লাহ মাস্টার, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সলিম উল্লাহ বারী চৌধুরী সোহেল, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক তামজিদ সরকার রিয়াদ ও জেলে প্রতিনিধি আবদুল ওহাব ।
প্রধান অতিথি বলেন, কারেন্ট জাল ও জাটকা ধরা আইনত দ-নীয় অপরাধ। জাটকা রক্ষায় সরকার বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে জেলেদের সহযোগিতা করছে। সরকারের সহযোগিতার পরও যদি কেউ জাটকা নিধন করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জেলেরা নদীতে মাছ ধরা ছাড়া অন্য কাজ করতে পারে না। তারা শুধু নদীতে মাছ ধরার কাজে নিয়োজিত থাকে। অসৎ কিছু জেলে নদীতে কারেন্ট জাল ফেলে জাটকা মাছ নিধন করে দেশের বৈদেশিক মুদ্রা নষ্ট করে। জাটকা এক সময় বড় হয়ে জাতীয় আয় বয়ে আনবে। তাই জাটকা আমাদের রক্ষা করতে হবে।
তিনি বলেন, বর্তমান সরকার ২ মাস নদীতে জাল ফেলা নিষিদ্ধ করার কারণে তাদের মাঝে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করে। সরকার কারেন্ট জালের কারখানাও বন্ধ করে দিয়েছে। এগুলো বন্ধ হওয়ার জন্য সরকার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করছে। আজকে যে উপকরণ দেয়া হলো তার সঠিক ব্যবহার করে জেলেরা সচ্ছল ভাবে দিনাতিপাত করতে পারবে। তিনি সঠিকভাবে এর ব্যবহার করতে আহ্বান জানান। তিনি জেলেদের হাতের কাজ শিখার জন্য বলেন। প্রয়োজনে উপজেলা পরিষদ সেলাই, গরু-মুরগী পালনের উপর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করবে।
তিনি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বেীর বিক্রম) এমপি ও তার পরিবারের সকলের জন্য দোয়া চেয়ে বলেন, মায়া ভাই মতলবের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন এবং জেলেদের ভাগ্য উন্নয়নে বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নিয়েছেন।

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর