বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০
logo
নির্বাচনী সহিংসতায় প্রার্থীসহ আহত ৫০॥ পুলিশের ১০ রাউন্ড গুলি বর্ষণ
চাঁদপুরের কচুয়ায় বিছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে ইউপি নির্বাচন সম্পন্ন
প্রকাশ : ২৮ মে, ২০১৬ ২১:৩১:২৪
প্রিন্টঅ-অ+
শরীফ চৌধুরী

চাঁদপুর: ৫ম ধাপে ২৮মে চাঁদপুর কচুয়ায় কিছু বিছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের ১২৭টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন ইউনিয়নে চেয়াম্যান, মেম্বারদের  প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় ও সংঘর্ষে অন্তত ৫০জন আহত হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে তিনটি কেন্দ্রে পুলিশ ১০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ করেছে বলে কচুয়া থানার ওসি ইব্রাহিম খলিল জানান। বিশৃঙ্খলা ও সংর্ঘষের ফলে ২০টি কেন্দ্র সাময়িকভাবে ভোটগ্রহণ স্থগিত করে  পুণরায় ভোট চালু করা হয়েছে বলে কচুয়া নির্বাচন অফিসার আনোয়ার হোসেন জানান। এদিকে কচুয়ায় ৫নং সহদেবপুর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী মামুনুর রহমান ভূঁইয়া ও আব্দুস সামাদ আজাদের সমর্থকদের মধ্যে কেন্দ্র দখলে চেষ্টায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। দুপুরে আব্দুস সামাদ আজাদকে অপর প্রার্থী  মামুনুর রহমান ভূইয়ার সমর্থক, কাদলা ইউনিয়নের  স্বতন্দ্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মাইন উদ্দিন মজুমদারকে, গুলবাহার কেন্দ্র থেকে পাথৈর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী জহিরুল ইসলামকে মারধর করে বের করে দেয়ার  অভিযোগ পাওয়া গেছে। সকাল ১১টার দিকে পশ্চিম সহদেবপুর ইউনিয়নের তুলপাই কেন্দ্রে  আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী সামসুদ্দিন মুন্সির সমর্থককমীরা জোরপূর্বক কেন্দ্র প্রবেশ করে ব্যালট ছিনিয়ে নিলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নির্দেশে ১৪০টি ব্যালট পেপার বাতিল করা হয়। এছাড়া এই ইউনিয়নের সহদেবপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কেন্দ্রে অনিয়মের মধ্যে দিয়ে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়। এদিকে সকাল ১০টায় বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ এনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শরীফুল হক শাহজী ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।
 

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর