শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০
logo
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অখ-মন্ডলীর ত্রয়োদশ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও নবীন বরণ অনুষ্ঠানে বক্তাগণ
যদি সামাজিক উন্নয়নই করা না যায় তাহলে কোনো উন্নয়ন টেকসই হবে না
প্রকাশ : ২২ মে, ২০১৬ ১১:২৭:১৮
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: চরিত্র গঠন আন্দোলন ও খ--বিখ- মানব জাতির অখ- মত-পথের প্রদর্শক অখ-ম-লেশ্বর শ্রী শ্রীমৎ স্বামী স্বরূপানন্দ পরমহংসদেবের আদর্শে উদ্বুদ্ধ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অখ-ম-লীর ত্রয়োদশ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও নবীন বরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
এ উপলক্ষে ২ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের শেষ দিন গত ২০ মে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জগন্নাথ হল উপাসনালয়ে সকাল ১১টায় 'সামাজিক উন্নয়নে চরিত্রগঠনই একমাত্র উপায়' শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তাগণ বলেন, সমাজকে বাসযোগ্য রাখতে চরিত্রগঠন আন্দোলনের বিকল্প নেই। 'আমি ভালো হব অপরকে ভালো হতে সাহায্য করব' যদি এই চিন্তা-চেতনা নিয়ে সকলে কাজ করি তাহলে আমরা সুন্দর পৃথিবী গড়ে তুলতে পারব। বক্তারা ১ জানুয়ারিকে চরিত্র আন্দোলন দিবস হিসেবে ঘোষণা করার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানিয়ে বলেন, প্রতিটি ধর্মই চরিত্রবান হওয়ার শিক্ষা দিয়েছে কিন্তু আমরা তা গ্রহণ করছি না। আজ ধর্মের নামে হানাহানি। আমরা যদি চরিত্রবান হই, নিজ নিজ ধর্মের প্রতি অনুরাগী হই, তাহলে আমাদের মাঝে হিংসা-বিদ্বেষ কিছুই থাকতো না। আমরা চরিত্রগঠনের মধ্য দিয়ে বিভিন্ন ধর্মের আদর্শ তুলে ধরতে পারি। আর এই চরিত্রগঠন আন্দোলনের রোল মডেল হলেন স্বামী স্বরূপানন্দ। আজ আমরা সকলেই কেবল উন্নয়নের কথা বলি। যদি সামাজিক উন্নয়নই করা না যায় তাহলে কোনো উন্নয়নই টেকসই হবে না। আর সেই উন্নয়নের মূলে রয়েছে চরিত্রগঠন আন্দোলন। স্বামী স্বরূপানন্দ একটি সম্প্রদায়ের জন্যই চরিত্রগঠন আন্দোলনের ডাক দেন নি, সকলের জন্যই চরিত্রগঠন আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন। আমরা যদি স্বামী স্বরূপানন্দের আদর্শ থেকে শিক্ষা নিতে পারি তাহলে সুন্দর বাংলাদেশ নির্মাণে আমরা সফল হব। সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হলে আমাদের চরিত্রবান হতে হবে। আমাদের ঐক্যবদ্ধ শক্তির কাছে দুর্বৃত্তরা পরাজিত হবেই।
আলোচনা সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অখ-ম-লীর কার্যকরী সভাপতি ও জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. অসীম সরকারের সভাপ্রধানে অতিথিদের মাঝে বক্তব্য রাখেন অযাচক আশ্রম বাংলাদেশের অধ্যক্ষ ডাঃ শ্রীমৎ যুগল ব্রহ্মচারী মহারাজ, অযাচক আশ্রম বাংলাদেশ বোর্ড অব ট্রাস্টের সভাপতি ও অযাচক আশ্রম চাঁদপুরের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ কবিরাজ সুখরঞ্জন ব্রহ্মচারী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যকরী সদস্য সুজিত রায় নন্দী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্ব ধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগের চেয়ারম্যান ফাদার ড. তপন ডি রোজারিও, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পালি এন্ড বুড্ডিস্ট স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. বিধান চন্দ্র বড়ুয়া, সনাক চাঁদপুরের সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক রোটারিয়ান কাজী শাহাদাত, কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স চ্যানেল ২৪-এর এডিটর রাহুল রাহা ও শ্রীশ্রী স্বামী ভোলানন্দ গিরি আশ্রম ট্রাস্টের সহ-সভাপতি অ্যাডঃ ডিএল চৌধুরী। সভার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক পলাশ কুমার বিশ্বাস।
সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রদীপ দেবনাথের পরিচালনায় অন্যান্যের মাঝে আরো বক্তব্য রাখেন অযাচক আশ্রম বোর্ড অব ট্রাস্টের সদস্য সচিব অ্যাডঃ নির্মল ব্রহ্মচারী, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থ বিভাগের উপ-পরিচালক সুব্রত বাহাদুর, সিলেট পার্কভিউ মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক বিধান চন্দ্র দেবনাথ, ঢাকা মহানগর অখ- সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক হরিপদ মজুমদার প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে ফরিদগঞ্জ উপজেলার সমবায় অফিসার দুলাল চন্দ্র দাস, চাঁদপুর সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তাপস চন্দ্র দাস সহ বাংলাদেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, ছাত্র সহ অখ- সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও আমন্ত্রিত অতিথিবর্গ যোগ দেন। আলোচনা সভার পূর্বে মঙ্গল ধ্বনিসহ সমবেত প্রেমধ্বনি, শ্রী শ্রী অখ- সংহিতা পাঠ, সমবেত উপাসনা, সম্প্রীতি র‌্যালী ও হরিওঁ কীর্তন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে নবাগত ছাত্রদের নবীন বরণ, কৃতী ছাত্রদের সংবর্ধনা, কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ও ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কৃত করা হয়।
অনুষ্ঠানে অখ- সংহিতা পাঠ সহ স্বরূপানন্দ সংগীত পরিবেশন ও প্রসাদ বিতরণ করা হয়।
 

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর