বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯
logo
চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ ইউনিয়নগুলো বহুমুখী সমস্যায় জর্জরিত
প্রতি পাঁচ বছর পর পর চেয়ারম্যানদের ভাগ্য বদলালেও ভাগ্য বদলায় না ইউনিয়নবাসীর
প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল, ২০১৬ ২৩:৫০:২০
প্রিন্টঅ-অ+
শরীফ চৌধুরী

চাঁদপুর: ২৩ এপ্রিল চাঁদপুরস্থ ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। প্রতি পাঁচ বছর পর পর চেয়ারম্যানদের ভাগ্য বদলালেও ভাগ্য বদলায় না ইউনিয়নবাসীর। তারা সব সময়ই বঞ্চিত হন সুষম উন্নয়ন থেকে। তেমনই এ নির্বাচনে অনেক প্রার্থীরই ভাগ্য খুলবে। কিন্তু ভাগ্য খুলবে কি ইউনিয়নগুলোর ? এ রকমই প্রশ্ন ইউনিয়নবাসীর। যিনিই চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন, নির্বাচনের পর তিনিই ব্যস্ত হয়ে পড়েন নিজের আখের গোছাতে। যে যৎ সামান্য উন্নয়ন হয়, তাও চেয়ারম্যানদের খেয়াল খুশিমত। এ ক্ষেত্রে উপেক্ষিত হয় জন গুরুত্ব। এ অসম উন্নয়ন ঐ ইউনিয়নবাসীদের তেমন একটা সুফল বয়ে আনেনা। অদক্ষ পরিষদই এর অন্যতম কারণ বলে এলাকার সচেতন সুশীল সমাজ মনে করেন। তাছাড়া সরকারী-বেসরকারী অনুদান যথাযথভাবে বন্টন না হওয়াটাও অন্যতম কারণ হিসেবে চিহ্নিত।
চাঁদপুরস্থ ফরিদগঞ্জ উপজেলায় রয়েছে ১৫ টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা। প্রায় সবগুলো ইউনিয়নই বহুমুখী সমস্যায় জর্জরিত। এ সব সমস্যার মধ্যে রয়েছে রাস্তা-ঘাট, বিদ্যুৎ, পুল-কালভার্ট, বিশুদ্ধ পানি, পয়ঃনিস্কাশন ব্যবস্থা, মাদক, জুয়া, চুরি-ডাকাতি, সালিশী বানিজ্য, ধর্ষণ, কর্মহীনতা, অশিক্ষা-কুশিক্ষা।  সর্বশেষ এখানে যোগ হয়েছে গুপ্ত হত্যা। এত গুলো সমস্যা নিয়ে ফরিদগঞ্জের চেয়ারম্যানগন বিগত দিন কাটিয়ে গেছেন। ১৬ নং রুপসা দক্ষিন ইউনিয়নের রাস্তা ছাড়া বাকী ইউনিয়গুলোর অধিকাংশ রাস্তা গুলোই কাঁচা। বর্ষাকালে যা ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। বেশ কিছু রাস্তা রয়েছে যেখানে অধিকাংশের কার্পেটিং উঠে গেছে। জায়গায় জায়গায় ছোট-বড় গর্তে পাকা রাস্তাগুলো কাঁচা রাস্তা থেকেও খারাপ অবস্থায় রয়েছে। প্রায় সবগুলো ইউনিয়নে আর্সেনিক মুক্ত পানির বড় অভাব। পর্যাপ্ত পরিমানে ডিপটিউবওয়েল বসানো হয়নি ইউনিয়নগুলোতে। মাদক বর্তমানে ইউনিয়নগুলোতে মহামারী আকারে ধারন করেছে। মাদক সেবিদের দ্বারা বিভিন্ন অপরাধ সংঘঠিত হচ্ছে। তারা চুরি-ডাকাতির সাথেও জড়িত আছে। কর্মহীনতার কারণে এক শ্রেণির যুবক বিভিন্ন জায়গায় অবস্থান করে স্কুল, মাদ্রাসা ও কলেজগামী ছাত্রীদের উক্ত্যক্ত করছে। আকাশ সংস্কৃতির প্রভাবে পারিবারিক অশান্তি দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে । একই কারনে এ অঞ্চলে ধর্ষনের মত ঘটনাও ঘটছে। ইদানিং যোগ হয়েছে গুপ্ত হত্যার সংস্কৃতি। পানি নিঃস্কাশনের যথাযথ ব্যবস্থা না থাকায় বর্ষাকালে ভারি বর্ষনে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এতে কৃষকের হাজার হাজার টাকার ফসল নষ্ট হয়।
ভবিষ্যৎতে এত সব সমস্যার সামাধান হবে কি না ইউনিয়নবাসী তা জানে না। চেয়ারম্যানরা নির্বাচনের পূর্বে যে ভাবে ইউনিয়নের উন্নায়নে এগিয়ে আসার কথা বলে ভোটাদের কাছ থেকে ভোট চেয়ে যাচ্ছে, ফরিদগঞ্জ উপজেলার ইউনিয়নবাসীদের দাবী, নির্বাচিত হয়ে তারা যেনো আন্তরিক ভাবে এ সব সমস্যার সামাধানসহ ইউনিয়নের উন্নায়নে এগিয়ে আসনে।
 

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর