রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০
logo
চাঁদপুর শহরের যত্রতত্র ময়লা আবর্জনার স্তূপ
প্রকাশ : ০৭ এপ্রিল, ২০১৬ ১০:৩৮:২১
প্রিন্টঅ-অ+

ফাইল ছবি

চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: চাঁদপুর শহরের যত্রতত্র ময়লা-আবর্জনার স্তূপ পড়ে থাকতে দেখা যায়। কী পাড়া- মহল্লা, কী প্রধান সড়ক। প্রায় সর্বত্র রাস্তার পাশে খোলা জায়গায় ময়লা-আবর্জনার স্তূপ পড়ে থাকে। এসব বর্জ্যের দুর্গন্ধে পরিবেশ মারাত্মক বিপর্যয়ের মুখে। এ বিষয়ে পৌর পরিষদকে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানান পৌরবাসী।
একটি শহরকে সুন্দর ও বাসযোগ্য রাখতে হলে এর পরিবেশকে পরিচ্ছন্ন রাখতে হয়। সুষ্ঠু বর্জ্য ব্যবস্থাপনা থাকতে হয়। পরিবেশ নোংরা হলে মানুষের জীবন দুর্বিষহ হয়ে ওঠে। তবে পরিবেশকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে প্রত্যেকেরই দায়িত্ব রয়েছে। মানুষ যদি যথাস্থানে বর্জ্য বা ময়লা-আবর্জনা না ফেলে যেখানে সেখানে ফেলে, তাহলে এর দ্বারা পরিবেশ বিপর্যয় ঘটে। আর এর দুর্ভোগ মানুষকেই পোহাতে হয়। আবার পৌর কর্তৃপক্ষেরও দায়িত্ব রয়েছে ডাস্টবিন থেকে বা রাস্তার পাশ থেকে সময়মতো বর্জ্য সরিয়ে ফেলার। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে দেখা গেছে যে, চাঁদপুর শহরে এ বিষয়টির বেশ অভাব রয়েছে। মানুষজন যেমন ডাস্টবিন বা যথাস্থানে ময়লা-আবর্জনা ফেলছে না, আবার পৌরসভার পরিচ্ছন্ন কর্মীরাও সময়মত বা নিয়মিত ময়লা-আবর্জনা অপসারণ করছে না। দেখা গেছে যে, ডাস্টবিন বা ডাস্টবিনের বাইরে এবং রাস্তার পাশে দিনের পর দিন ময়লা পড়ে থাকে। এতে করে দুর্গন্ধে পরিবেশ বিপর্যয়ের মুখে পড়ে। মানুষজনকে চলাফেরা করতে হয় নাকে রুমাল চেপে। আর এসব ময়লার স্তূপে সারাক্ষণ মাছি ভন ভন করেতে থাকে। সব মিলিয়ে বিশ্রী এক পরিবেশ।
চাঁদপুর শহরের আদালতপাড়া, প্রেসক্লাব সড়ক, জোড় পুকুর পাড় এলাকার পুকুর পাড়, প্রধান ডাকঘরের সামনে, পৌর ঈদগাহর সামনে, স্ট্র্যান্ড রোডস্থ পৌর উদ্যানের সামনে, আলিমপাড়া আল-আমিন একাডেমী ছাত্রী শাখার সংলগ্ন রেললাইনের পাশে, নিউ আলিম পাড়া, পালপাড়া, প্রতাপসাহা রোড, নাজির পাড়া, ব্যাংক কলোনীসহ আরো বেশ কিছু পাড়া-মহল্লা ঘুরে ময়লা-আবর্জনার স্তূপসহ নোংরা পরিবেশ পরিলক্ষিত হয়। এসব এলাকায় দেখা গেছে যে, কোনো কোনো জায়গায় ডাস্টবিন না থাকায় রাস্তার পাশে যেখানে সেখানে ময়লা-আবর্জনা ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে রয়েছে। আবার যেসব জায়গায় ডাস্টবিন রয়েছে ঠিক কিন্তু মানুষেরা ময়লা ডাস্টবিনে না ফেলে এর আশপাশে খোলা জায়গায় ফেলছে। এ সব ময়লা নিয়মিত অপসারণ না করায় দিনের পর দিন খোলা জায়গায় পড়ে থাকায় দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। শহরবাসী বলছেন, শহর পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা এবং পাড়া-মহল্লা থেকে ময়লা আবর্জনা অপসারণ করার বিষয়টি তো ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের মনিটরিং করার কথা। নাগরিক সেবার মধ্যে এটি তো কাউন্সিলরদের কাঁধে প্রধানতম কাজ। তারাই তো পৌরসভার সংশ্লিষ্ট বিভাগ দিয়ে এ কাজটি নিয়মিতভাবে করাবেন। তাছাড়া বাসাবাড়ি থেকে ভ্রাম্যমাণ পরিচ্ছন্ন কর্মীর দ্বারা ময়লা তুলে নিয়ে আসা যায়। যা কিছু কিছু মহল্লায় আছে। শহরবাসী আশা করছেন, বর্তমান পৌর পরিষদ শহরকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখবেন এবং একটি সুষ্ঠু বর্জ্য ব্যবস্থাপনার পরিকল্পনা গ্রহণ করবেন। এর দ্বারা যেমনি শহরের পরিবেশ সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন থাকবে তেমনি শহরটিও পরিবেশবান্ধব ও বাসযোগ্য হয়ে উঠবে।
 

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর