রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০
logo
ভাটিয়ালপুর-হরিণা সড়ক সংস্কারের নামে যেনো তামাশা হচ্ছে
প্রকাশ : ০৭ এপ্রিল, ২০১৬ ১০:৩৪:০৯
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: ফরিদগঞ্জের ভাটিয়ালপুর হতে চাঁদপুর সদরের হরিণা ঘাট পর্যন্ত সড়কটি সংস্কারের নামে যেনো তামাশা করা হচ্ছে। চলছে নিম্নমানের কাজ। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঠিক তদারকি ছাড়াই তড়িঘড়ি করে দায়সারাভাবেই চলছে কাজ। নিম্নমানের এ কাজটি জনগণের আরো দুর্ভোগ বাড়াবে বলে মনে করছেন সচেতন মহল।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ভাটিয়ালপুর-হরিণা সড়কটি (প্রায় তিন কিঃমিঃ) সংস্কারের জন্য প্রায় ৩৮ লাখ টাকার এই সংস্কার কাজটি দায়সারাভাবেই চলছে। উক্ত সড়কের ভাটিয়ালপুর থেকে আইলের রাস্তা মোড় পর্যন্ত সড়ক ও জনপথ বিভাগ ২ কিলো ৮ মিটার সড়ক সংস্কারের জন্যে গত কয়েক মাস পূর্বে টেন্ডার আহ্বান করা হয়। টেন্ডার প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করে লটারির মাধ্যমে এ কাজ পায় কুমিল্লা জেলার তোফায়েল আহাম্মেদ নামে এক ঠিকাদার।
গতকাল সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, দ্রুতগতিতে ওই সড়কটি ক'জন নারী শ্রমিক দিয়ে বিভিন্ন গর্তে কিছু ইটবালু ফেলে তাতে বিটুমিন ছিটিয়ে রোলার মেশিন চালিয়ে তাৎক্ষণিক মাড়ানো শেষে বালু ছিটিয়ে চলছে কাজ। কাজের সিডিউল মতো এই কাজ হচ্ছে না বলে একাধিক ঠিকাদার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জানিয়েছেন। শুধু তাই নয়, নিম্নমানের এই কাজের প্রতি সন্তুষ্ট নন সড়ক ও জনপথের ওয়ার্ক অ্যাসিস্টেন্ট শফিকুর রহমান।
এলাকার ক্ষুব্ধ মিজান, রফিকসহ বেশ কজন জানান, এই সড়কটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিদিন এ সড়ক দিয়ে শরিয়তপুর, খুলনা বরিশালসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে শ' শ' ট্রাক ও বাস চলাচল করছে। এই সড়ক সংস্কারের জন্যে এখন 'কামের' নামে মূলত 'আকাম' চলছে। এখন বাধা দিলেই বলবে আমরা চাঁদার জন্যে কাজে বাধা দিচ্ছি। কাজের গুণগতমান দেখে মনে হচ্ছে 'সরকার কা মাল দরিয়া মে ঢাল' অবস্থা হয়ে দাঁড়িয়েছে।
যোগাযোগ করা হলে সড়ক ও জনপথের ওয়ার্ক এসিস্টেন্ট শফিকুর রহমান এই কাজের ঠিকাদারের পক্ষে সাফাই গেয়ে মুঠোফোনে বলেন, উক্ত কাজে ঠিকাদারের তেমন লাভ হবে না। কাজের মান খারাপ দেখে দুদিন কাজ বন্ধ রাখা হয়েছে। কাজে লাভ না হলে তড়িঘড়ি এই কাজ করছে কেনো এমন প্রশ্নের জবাবে শফিকুর রহমান বলেন, লটারীর মাধ্যমে পাওয়া কাজটি ঠিকাদার তোফায়েল না করলে তার লাইসেন্স কালো তালিকাভুক্ত কিংবা বাতিল হতে পারে।
এ ব্যাপারে বক্তব্য নিতে ঠিকাদার তোফায়েলের মোবাইল বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। তবে কাজের সময় ঠিকাদারের ভাতিজা তারিকুল কাজটি তদারকি করছেন বলে জানা গেছে। এ দিকে উক্ত কাজের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সাহেদ সরকার বলেন, সড়কটি সংস্কারের নামে নিম্নমানের কাজ হওয়ার বিষয়টি এলাকার এমপি ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগ চাঁদপুরের নির্বাহী প্রকৌশলীকে অবহিত করেছি।
 

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর