বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০
logo
ওজন বাড়াতে অসাধু ব্যবসায়ীদের কাণ্ড!
জেলি পুশকৃত ২ হাজার কেজি গলদা চিংড়ি জব্দ করেছে কোস্টগার্ড
প্রকাশ : ০২ এপ্রিল, ২০১৬ ১৬:৩০:৩৭
প্রিন্টঅ-অ+
চাঁদপুর ওয়েব ডেস্ক

চাঁদপুর: মাছের ওজন বাড়াতে অসাধু ব্যবসায়ীরা যে কী অসদুপায় অবলম্বন করে থাকে তার প্রমাণ মিললো কোস্টগার্ড কর্তৃক উদ্ধার হওয়া বিপুল পরিমাণ গলদা চিংড়ি দেখে। এসব চিংড়িতে জেলি পুশ করা। কেমিক্যাল মিশ্রিত এক প্রকার এই জেলি প্রতিটি চিংড়িতে ১শ' থেকে দেড়শ গ্রাম রয়েছে। দীর্ঘদিন যাবৎ অসাধু কিছু ব্যবসায়ী এ অনৈতিক কাজটি করে আসলেও অবশেষে ধরা পড়লো। তবে জব্দকৃত এসব চিংড়ির দাবিদার কেউ না হওয়ায় কাউকে আটক করা যায় নি।
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার চাঁদপুরের কয়েকটি মাছের আড়তে কোস্টগার্ড অভিযান চালিয়ে ১০ লাখ টাকা মূল্যের ২ হাজার কেজি গলদা চিংড়ি জব্দ করে। পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া এসব চিংড়ি গতকাল শুক্রবার প্রকাশ্যে মাটিচাপা দিয়ে ধ্বংস করা হয়েছে। কোস্টগার্ড চাঁদপুরের স্টেশন কমান্ডার লে. এনায়েত উল্লা জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে চাঁদপুর সদর উপজেলার হরিণা ফেরি ঘাট, আলুরবাজার ও চাঁদপুর মাছ ঘাট এলাকায় ২০টি বাঙ্ ভর্তি ২ হাজার কেজি গলদা চিংড়ি পরিত্যক্ত অবস্থায় জব্দ করা হয়। এসব চিংড়িতে পুশকৃত এক প্রকার জেলি মিশ্রিত থাকায় জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডলের নির্দেশে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট লিটুস লরেন্স চিরান শহরের ইচলী এলাকায় ডাকাতিয়া নদীর পাড়ে মাটি চাপা দিয়ে ধ্বংস করেন।
জেলা প্রশাসক মোঃ আব্দুস সবুর মন্ডল বলেন, এসব চিংড়ির মাথার অংশে সিরিঞ্জ দিয়ে পুশ করে মেশানো জেলি বিষাক্ত কিনা তা পরীক্ষার জন্যে জেলা মৎস্য কর্মকর্তার মাধ্যমে কিছু মাছ চট্টগ্রামে একটি ল্যাবে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। কোস্টগার্ড চাঁদপুর স্টেশন কমান্ডার লে. এনায়েত উল্লা বলেন, চিংড়ি ব্যবসায়ীরা চিংড়ির ওজন বাড়াতে এসব জেলি ব্যবহার করে। প্রাথমিক পরীক্ষা করে প্রতিটি চিংড়ির ভেতর একশ থেকে দেড়শ গ্রাম জেলি পাওয়া যায়। এসব চিংড়ি খুলনা থেকে বিভিন্ন বাসে করে চাঁদপুরে বিক্রির জন্যে আনা হয়। চাঁদপুরে এই চিংড়ি প্রায় সময় এনে বিক্রি করছে এমন অভিযোগ পেয়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে এসব চিংড়ি জব্দ করা হয়।
 

চাঁদপুর : স্থানীয় সংবাদ এর আরো খবর