শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০
logo
রিজার্ভ চুরির কোটি ডলার দিতে রাজি কিম অং
প্রকাশ : ৩০ মার্চ, ২০১৬ ০৯:০৮:৫১
প্রিন্টঅ-অ+
ব্যবসা ওয়েব

ঢাকা : বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ অ্যাকাউন্ট থেকে লোপাট হয়ে ফিলিপাইনে যাওয়া ৮১ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের একটি বড় অংশ নিজের কোম্পানি ইস্টার্ন হাওয়াই লেইজারের অ্যাকাউন্টে ঢুকেছে বলে স্বীকার করেছেন চীনা ব্যবসায়ী কিম অং।
মঙ্গলবার ফিলিপাইনের সিনেট কমিটির শুনানিতে কিম অং বলেন, ‘ইস্টার্ন হাওয়াই ক্যাসিনোতে এ অর্থ গেছে।’ এ অর্থের পরিমাণ স্থানীয় মুদ্রায় ১ বিলিয়ন পেসো। তবে চীনা এ ব্যবসায়ী ৪৫০ মিলিয়ন (প্রায় এক কোটি ডলার) পেসো বাংলাদেশ ব্যাংককে ফেরৎ দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন সিনেট কমিটির শুনানিতে।
 
গত ৫ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে গচ্ছিত বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ অ্যাকাউন্ট থেকে ১০১ মিলিয়ন ডলার হাতিয়ে নেয় দুর্বৃত্তরা। লোপাট হওয়া অর্থের ৮১ মিলিয়ন যায় ফিলিপাইনের রিজাল ব্যাংকের মাকাতি সিটির জুপিটার শাখার চার ব্যাবাসায়ীর অ্যাকাউন্টে। বাকি ২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার যায় শ্রীলংকার একটি সাহায্য সংস্থার অ্যাকাউন্টে। তবে প্রাপক সংস্থার নামের বানানে ভুল থাকায় ব্যাংক কর্মকর্তারা তা আটকে দেয়।
 
গত ২৯ ফেব্রুয়ারি ব্যাংক জালিয়াতির এ সংবাদ ম্যানিলাভিত্তিক ইংরেজি দৈনিক দ্য ইনকোয়েরার প্রকাশ করলে বিশ্বজুড়ে হৈচৈ পড়ে যায়। এ নিয়ে তৃতীয় দফায় শুনানি করলো ফিলিপাইন সিনেট কমিটি। আগের দুই দফা শুনানিতে অর্থ পাচারে জড়িত রিজাল ব্যাংক প্রেসিডন্টসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের শুনানি গ্রহণ করা হয়।
মঙ্গলবার শুনানির শুরুতে চীনা ব্যবসায়ী কিম অং ফিলিপাইনে পাচার হয়ে আসা বিপুল অংকের এ টাকা লেনদেনে তার সম্পৃক্ততার কথা দৃঢভাবে অস্বীকার করেন। বলেন, ‘রিজার্ভের এ অর্থ জালিয়াতি এবং তা ফিলিপাইনে নিয়ে আসার জন্য দুই চীনা নগারিক জড়িত।’ তাদের নাম প্রথমে প্রকাশ্যে বলতে আপারগতা জানালেও পরে সিনেট কমিটি সদস্যদের প্রশ্নের মুখে ওই দুই নাম প্রকাশ করেন। তারা হচ্ছেন- বেইজিংয়ের ব্যবসায়ী শুহুয়া গাও এবং ম্যাকাওয়ের ডিং জিজে।
শুনানিতে কিম অং আরো জানান, কোম্পানির অ্যাকাউন্টে আসা অর্থের ৫৫০ মিলিয়ন পেসো ইতোমধ্যে চিপস কেনায় ব্যয় হয়েছে। এখন কোম্পানি অ্যাকাউন্টে ৪০ মিলিয়ন পেসো আছে। বাকি অর্থের মধ্যে ৪৫০ মিলিয়ন পেসো জানকেট অপারেটর শুহুয়া গাওয়ের ঋণ পরিশোধে ব্যয় হয়েছে। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থ বলে প্রমাণিত হলে এ টাকা শুহুয়া গাও ফিরিয়ে দেবে বলে তাকে জানিয়েছে।

ব্যবসা-অর্থনীতি এর আরো খবর