বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০
logo
মা ফেসবুক স্ট্যাটাস বোঝেন না, বোঝেন সন্তানের ডাক
প্রকাশ : ০৮ মে, ২০১৬ ১৩:১৭:১৯
প্রিন্টঅ-অ+
প্রবাস ওয়েব

চাঁদপুর : বিশ্ব মা দিবস, ফেসবুকে স্ট্যাটাস, প্রোফাইল পিকচারে ‘আই লাভ মম’ আসলে এর কোনোটাই মা বোঝেনা। মা সবচেয়ে ভালো বোঝে তার সন্তানের মুখের মা ডাক, সেটা সামনে থেকেই হোক আর দূর প্রবাস থেকে মোবাইলে যদি বলি ‘মা ভালো আছো’?
মা আমাদের গর্ভধারণ, জন্মদান তথা সন্তানকে বড় করে তোলেন। তিনিই অভিভাবকের ভূমিকা পালনে সক্ষম ও মা হিসেবে সর্বত্র পরিচিত। প্রকৃতিগতভাবে একজন নারী বা মহিলাই সন্তানকে জন্ম দেয়ার অধিকারী। গর্ভধারণের ন্যায় জটিল এবং মায়ের সামাজিক, সাংস্কৃতিক এবং ধর্মীয় অবস্থানে থেকে বিশ্বজনীন গৃহীত হয়েছে।
ইতিহাস থেকে জানতে পারি, মে মাসের দ্বিতীয় রোববারকে ‘মা দিবস’ হিসেবে উদযাপনের ঘোষণা দেয়া হয় ১৯১৪ খ্রিস্টাব্দের ৮ মে মার্কিন কংগ্রেসে। আর তখন থেকেই এই দিনে সারা বিশ্বব্যাপী পালিত হচ্ছে মা দিবস। বিশ্বের প্রায় ৪৬টি দেশে প্রতিবছর দিবসটি পালিত হয় হয়।
মা সম্পর্কে ইসলাম ধর্মের পবিত্র গ্রন্থ কোরআনে বলা হয়েছে, ‘আমি মানুষকে তাদের পিতা-মাতার সাথে সদ্ব্যবহার করার জোর নির্দেশ দিয়েছি। যদি তারা তোমাকে আমার সাথে এমন কিছু শরীক করার জোর প্রচেষ্টা চালায়, যার সম্পর্কে তোমার কোন জ্ঞান নেই, তবে তাদের আনুগত্য করো না। আমারই দিকে তোমাদের প্রত্যাবর্তন। অতঃপর আমি তোমাদেরকে বলে দেব যা কিছু তোমরা করতে।’
একটি হাদীসে ইসলামের নবী মুহাম্মদ বলেছেন, ‘মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেস্ত (স্বর্গ)।’
সনাতন ধর্মে উল্লেখ আছে ‘স্ববংশবৃদ্ধিকামঃ পুত্রমেকমাসাদ্য’। আবার সন্তান লাভের পর নারী তার রমণীমূর্তি পরিত্যাগ করে মহীয়সী মাতৃরূপে সংসারের অধ্যক্ষতা করবেন। তাই মনু সন্তান প্রসবিনী মাকে গৃহলক্ষ্মী সম্মানে অভিহিত করেছেন। তিনি মাতৃ গৌরবের কথা বিশ্ববাসীকে জানিয়েছেন এভাবে- ‘উপাধ্যায়ান দশাচার্য্য আচায্যাণাং শতং পিতা। সহস্রন্তু পিতৃন্মাতা গৌরবেণাতিরিচ্যতে’ (মনু,২/১৪৫) অর্থাৎ ‘দশজন উপাধ্যায় (ব্রাহ্মণ) অপেক্ষা একজন আচার্য্যরে গৌরব অধিক, একশত আচার্য্যরে গৌরব অপেক্ষা পিতার গৌরব অধিকতর; সর্বোপরি, সহস্র পিতা অপেক্ষা মাতা সম্মানার্হ।’
প্রবাসীদের কাছে অতি আপনজন মা, প্রবাসীরা সবচেয়ে মিস করে মাকে। মায়ের কথা মনে হলেই চোখে কোথায় থেকে যেন অজানা পানি বেয়ে পড়ে। মা আদরের তো তুলনায় হয় না।
দূর পরবাস থেকে সকল মাকে জানাই সশ্রদ্ধ সালাম ও বিশ্ব মা দিবসের শুভেচ্ছা।
লেখক : সিঙ্গাপুর প্রবাসী ও সাংবাদিক
 

প্রবাস এর আরো খবর