বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯
logo
আমি কি রাস্তার লোক? দায়িত্ব নিয়েই কথা বলেছি: নাছির
প্রকাশ : ১৮ আগস্ট, ২০১৬ ১৩:২৩:১৪
প্রিন্টঅ-অ+
চট্টলা ওয়েব

চট্টগ্রাম: সিটি করপোরেশনের জন্য পর্যাপ্ত বরাদ্দ না পাওয়ার পেছনে ঘুষ না দেয়ার কারণ উল্লেখ করে যে অভিযোগ তুলেছিলেন তার প্রমাণ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, “সবই তো আছে। আমি কি রাস্তার লোক? আমি দায়িত্ব নিয়েই কথা বলেছি এবং দায়িত্ব নিয়েই কথা বলব।”
শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রাম নগরের মুসলিম ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে এ কথা বলেন আ জ ম নাছির। সাংবাদিকরা তার কাছে জানতে চান- ঘুষের অভিযোগের পক্ষে প্রমাণ আছে কি না।
গত বুধবার নগরের থিয়েটার ইনস্টিটিউট চট্টগ্রাম মিলনায়তনে ‘চট্টগ্রাম নগর সংলাপ’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন অভিযোগ করেন, মন্ত্রণালয়ের কিছু কর্মকর্তাকে ৫ শতাংশ করে দিতে রাজি না হওয়ায় করপোরেশনের জন্য পর্যাপ্ত বরাদ্দ পাননি। তিনি আরও অভিযোগ করেন, ‘যদি ৫ শতাংশ করে দিতে পারতাম, তাহলে ৩০০ থেকে ৩৫০ কোটি টাকা আনতে পারতাম।’
গণমাধ্যমে এই সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর এই অভিযোগের পক্ষে প্রমাণ দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনকে চিঠি দেয় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। চিঠিতে কোন কর্মকর্তা কোথায় কখন ঘুষ দাবি করেছেন, কে কোথায় কখন পাজেরো জিপ চেয়েছেন, কোন প্রকল্পের অর্থ ছাড়ে কোন কর্মকর্তা জটিলতা সৃষ্টি করেছেন, তা সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ করে উপযুক্ত প্রমাণ মন্ত্রণালয়ে দাখিল করতে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। চট্টগ্রামের মেয়র মন্ত্রণালয়ের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এনেছেন তা অত্যন্ত ‘গুরুতর’ উল্লেখ করে আগামী সাত দিনের মধ্যে এসব প্রমাণ দাখিল করতে বলা হয়েছে। মেয়রের আনা অভিযোগে মন্ত্রণালয় তথা সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে বলে তাকে দেয়া চিঠিতে জানানো হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব জ্যোতির্ময় দত্ত এ চিঠি দেন।
বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যেই স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের চিঠির জবাব দেবেন বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।
মন্ত্রণালয়ের চিঠি প্রসঙ্গে আ জ ম নাছির বলেন, “চিঠি দেয়ার বিষয়টি শুনেছি। আমি আজ (শুক্রবার) সকালে ঢাকা থেকে ফিরেছি। আজ অফিস বন্ধ। কালও বন্ধ। খোলার দিন অফিসে যাব। গিয়ে দেখব। দেখে অফিশিয়ালি যেটি করার সেটি করব। সাত দিনের মধ্যেই জবাব দেব।”

২য় রাজধানী এর আরো খবর